100% গ্যারান্টি!! মাত্র 1৫ মিনিটেই ফর্সা এবং উজ্জ্বল ত্বক পেতে বাড়িতে বসে একবার এইভাবে ফেসিয়াল করে নিন।

বর্তমান সময়ে নারী পুরুষ নির্বিশেষে সবাই বিচিতে রূপচর্চা নিয়ে অত্যন্ত সচেতন। উজ্জ্বল, ফর্সা, কোমল এবং মসৃণ ত্বক পেতে আমাদের মধ্যে অনেকেই বিভিন্ন ধরনের পদ্ধতি গ্রহণ করে থাকেন। অনেকেই বিভিন্ন কেমিক্যালযুক্ত প্রসাধনী ব্যবহার করে আসছেন। সুন্দর, উজ্জ্বল এবং ফর্সা ত্বকের জন্য ফেসিয়াল অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

তবে পার্লারে গিয়ে ফেসিয়াল করা অনেকের জন্য  অনেক বেশি ব্যয়বহুল। অনেকেই আবার নিয়ম করে সময় বের করে পার্লারে যেতে পারেন না। তাই সময় এবং সুযোগের অভাবে যারা পার্লারে গিয়ে ফেসিয়াল করতে পারেন না । তারা ঘরে বসেই ফেসিয়াল করে নিয়ে নিজেদের ত্বকের যত্ন নিতে পারবেন।

অবাক হওয়ার কিছুই নেই বন্ধুরা আমাদের এই আলোচনাটি সাজিয়েছি সম্পূর্ণ প্রাকৃতিক ভাবে বাড়িতে বসে কিভাবে নিজের ফেসিয়াল করবেন তার বিস্তারিত বর্ণনা নিয়ে । তাহলে চলুন বন্ধুরা দেখে নেয়া যাক মাত্র 15 মিনিটে ফর্সা ত্বক পেতে কার্যকরী ফেসিয়াল টি।

মাত্র ১৫ মিনিটেই  ফর্সা এবং উজ্জ্বল ত্বক পেতে বাড়িতে বসে যে ফেসিয়াল টি করে নিবেনঃ

 

কিছু ধারাবাহিক ধাপ অতিক্রম করার মাধ্যমে বাড়িতে বসেই আপনি পার্লারের মত ফেসিয়াল করে নিতে পারবেন। নিচে ধারাবাহিক ধাপ সমূহ বিস্তারিত আলোচনা করা হলোঃ

 

  প্রথম ধাপঃ

 

ত্বক কে ফর্সা ও অতিমাত্রায় উজ্জ্বল করতে ফেসিয়াল করার সর্ব প্রথম ধাপ হচ্ছে ত্বক কে পরিষ্কার করা অর্থাৎ ক্লিনজিং।

 

বিভিন্ন উপায়ে ত্বকের এই ক্লিনিং ধাপ অতিক্রম করা যায়। আপনি নিন্মে বর্ণিত যেকোন উপায়ে ক্লিন করতে পারেন।

 

স্লাইস করে একটি লেবু কেটে নিয়ে তাতে আধা চা চামচ মধু দিয়ে সম্পূর্ণ মুখে ঘষে ঘষে মুখ পরিষ্কার করে নিন।

1 চা চামচ চন্দন পাউডার এর সাথে কাঁচা তরল দুধের ঘন পেস্ট তৈরি করে নিয়ে মুখ ঘষে ঘষে পরিষ্কার করে নিতে পারেন।

অ্যালোভেরার জেল এবং গোলাপজল দিয়ে ক্লিন করা যায়।

বিশেষ দ্রষ্টব্যঃ

আপনার ত্বক অতিরিক্ত সেনসিটিভ হলে লেবু ব্যবহারের পরিবর্তে পাকা লাল টমেটো ব্যবহার করবেন।

 

  দ্বিতীয় ধাপঃ

বাড়িতে বসেই দ্রুত ফর্সা এবং উজ্জ্বল ত্বক পেতে ফেসিয়াল এর দ্বিতীয় ধাপটি হচ্ছে মাসাজিং।

ত্বক কে ভালভাবে মাসাজ করার জন্য আপনাকে কিছু উপাদান এর সাহায্যে একটি প্যাক তৈরি করে নিতে হবে।

একটি পরিষ্কার পাত্রে  2 টেবিল চামচ শশার রস।

2 চা চামচ বেসন।

1 চা চামচ এলোভেরা জেল।

এবং 1 চা চামচ মধু ভালোভাবে মিশিয়ে একটি প্যাক তৈরি করে নিন।

 

এবার তুলা অথবা নরম ব্রাশের সাহায্যে সম্পূর্ণ মিশ্রণ টি মুখে ভালোভাবে স্ক্রাব করে লাগিয়ে নিন।

এবার স্ক্রাবারের সাহায্যে অথবা হাতের সাহায্যে আলতোভাবে 7 থেকে 10 মিনিট ভালোভাবে আপনার ত্বকে ম্যাসাজ করুন।

এরপর আপনার মুখ গোলাপজল অথবা কাঁচা তরল দুধ দিয়ে ধুয়ে নিন।

 

তৃতীয় ধাপঃ

আপনার ত্বককে ফেসিয়ালের জন্য উপযুক্ত করে তোলার জন্য এই ধাপটি অত্যন্ত কার্যকরী । বাড়িতে বসে ফর্সা ত্বক পেতে ফেসিয়াল করার তৃতীয় ধাপ হচ্ছে স্টিমিং বা ত্বকে গরম জলের ভাপ নেয়া।

একটি পরিষ্কার চওড়া পাত্রে ফুটন্ত গরম পানি নিন। এবার মাথার উপরে তোয়ালে ঝুলিয়ে নিয়ে পাত্রটির ওপরে ঝুঁকে পড়োন। যেন পাত্র থেকে ওঠা পানির ভাপ সরাসরি আপনার মুখে লাগে। এভাবে 7 থেকে 10 মিনিট আপনার মুখে ভাপ লাগিয়ে নিন।

স্টিমিং এর ফলে আপনার ত্বক অতি সংবেদনশীল হয়ে উঠবে।

আপনার ত্বকের কোষ সমূহ প্রসারিত হয়ে উঠবে।

 

  চতুর্থ ধাপঃ

মাত্র 15 মিনিটে উজ্জ্বল এবং ফর্সা ত্বকের জন্য বাড়িতে বসে ফেসিয়াল করার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ থাকতে হচ্ছে ফেস মাস্ক এপ্লাই। এই চতুর্থ ধাপে আপনাকে প্রথমে একটি ফেইস মাস্ক তৈরি করে নিতে হবে।

উপকরণসমূহঃ

চন্দন পাউডার 2 টেবিল চামচ।

অ্যালোভেরার জেল 2 চা চামচ।

কাঁচা হলুদের গুঁড়া আধা চা-চামচ।

গোলাপজল পরিমাণমতো।

বিটরুটের রস 2 চা চামচ।

উপরে উল্লেখিত উপকরণসমূহ একটি পরিষ্কার পাত্রে নিয়ে উপাদান গুলি ভালভাবে  মিশিয়ে নিয়ে ঘন করে অত্যন্ত কার্যকরী ফেস মাস্ক তৈরি করে নিন।

এবার তোলা অথবা নরম ব্রাশের সাহায্যে মিশ্রণটি আপনার সম্পূর্ণ মুখে ভালভাবে লাগিয়ে নিন।

10 মিনিট আলতোভাবে স্ক্রাব করুন।

এরপর 40 থেকে 50 মিনিট চোখ বন্ধ করে হেলান দিয়ে শুয়ে থাকুন।

আপনি চাইলে এই সময়টুকুতে দুটো শসা স্লাইস করে কেটে নিয়ে চোখের উপর রেখে দিতে পারেন।

অথবা গোলাপজলে তুলা ভিজিয়ে ভেজা তুলো চোখের উপর রেখে দিতে পারেন।

40 থেকে 50 মিনিট পর কুসুম গরম জলে তুলা ভিজিয়ে মিশ্রণটি ঘষে ঘষে আস্তে আস্তে তুলে নিন।

এরপর ঠাণ্ডা পরিষ্কার জল দিয়ে মুখ ধুয়ে নিন।

 

  পঞ্চম ধাপঃ

বাড়িতে বসে ফেসিয়াল করার সর্বশেষ ধাপটি হচ্ছে  ত্বক ময়েশ্চারাইজ করা।

ফেসিয়াল শেষে আপনার ত্বক অত্যন্ত সংবেদনশীল এবং স্পর্শ কাতর হয়ে পড়ে।

তাই দ্রুত আপনার ত্বককে ময়েশ্চারাইজ করে নিবেন।

আপনার ত্বকের জন্য উপযোগী যেকোনো ময়েশ্চারাইজার  ক্রিম ব্যবহার করতে পারেন।

এক চা চামচ এলোভেরা জেল এবং এক চা-চামচ মধু মিশিয়ে ময়েশ্চারাইজার হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন।

 

 বিশেষ দ্রষ্টব্যঃ

উপরে বর্ণিত কোন উপকরণ আপনার ত্বকের জন্য এলার্জিক হলে তা ব্যবহার থেকে সম্পূর্ণ বিরত থাকুন।

ফেসিয়াল করার পর কোন ধরনের মেকআপ লাগাবেন না অন্তত ২৪ ঘন্টা।

ফেসিয়াল করার পর 24 ঘন্টা কোন ধরনের ফেসওয়াশ এবং সাবান ত্বকে ব্যবহার করবেন না।

আপনার মুখে হাত দেয়ার সময় হাত পরিষ্কার করে নিবেন।

মুখ খোঁচাবেন না।

ফেসিয়ালের ফেস মাস্ক মুখে লাগিয়ে রোদে, গরম স্থানে এবং ধুলাবালি যু্ক্ত স্থানে যাবেন না।

ফেসিয়াল করার পর অন্তত 3 দিন কড়া রোদে বের হওয়া থেকে বিরত থাকুন।

বের হতে হলে ছাতা ব্যবহার করুন।

 

ফেসিয়াল টি মাত্র একবার বাড়িতে বসে করে নিলে আপনার ত্বক হয়ে উঠবে উজ্জ্বল, ফর্সা এবং অত্যন্ত আকর্ষণীয়। তাই স্থায়ীভাবে উজ্জ্বল এবং ফর্সা হতে মাসে অন্তত একবার ফেসিয়ালটি আপনার ত্বকে এপ্লাই করুন আমাদের নির্দেশিত পন্থা অনুসরণ করে। হয়ে উঠুন স্থায়ীভাবে উজ্জ্বল, ফর্সা এবং আকর্ষনীয় ত্বকের অধিকারী।

 ধন্যবাদ